Grammar

বাক্য সংকোচন বা এক কথায় প্রকাশ

 

বাক্য সংকোচন বা এক কথায় প্রকাশ

বাক্য সংকোচন বা এক কথায় প্রকাশ একাধিক পদ বা উপবাক্যকে একটি শব্দে প্রকাশ করা হলে, তাকে বাক্য সংকোচন, বাক্য সংক্ষেপণ বা এক কথায় প্রকাশ বলে ।

অর্থাৎ একটিমাত্র শব্দ দিয়ে যখন একাধিক পদ বা একটি বাক্যাংশের (উপবাক্য) অর্থ প্রকাশ করা হয়, তখন তাকে বাক্য সংকোচন বলে ।

যেমন- হীরক দেশের রাজা- হীরকরাজ

এখানে হীরকরাজ- শব্দের মাধ্যমে হীরক দেশের রাজা- এই তিনটি পদের অর্থই সার্থকভাবে প্রকাশ পেয়েছে । এই তিনটি পদ একত্রে একটি বাক্যাংশ বা উপবাক্যও বটে । অর্থাৎ, হীরক দেশের রাজা- তিনটি পদ বা বাক্যাংশটির বাক্য সংকোচন হল- হীরকরাজ ।

 

কিছু গুরুত্বপূর্ণ বাক্য সংকোচন/এক কথায় প্রকাশ

 

অকালে পেকেছে যে- অকালপক্ক্ব

অক্ষির সম্মুখে বর্তমান- প্রত্যক্ষ

অভিজ্ঞতার অভাব আছে যার- অনভিজ্ঞ

অহংকার নেই যার- নিরহংকার

অশ্বের ডাক- হ্রেষা

অতি কর্মনিপুণ ব্যক্তি- দক্ষ

অনুসন্ধান করবার ইচ্ছা- অনুসন্ধিৎসা

অনুসন্ধান করতে ইচ্ছুক যে- অনুসন্ধিৎসু

অপকার করবার ইচ্ছা- অপচিকীর্ষা

অগ্রপশ্চাৎ বিবেচনা না করে কাজ করে যে- অবিমৃষ্যকারী

অতি শীতও নয়, অতি উষ্ণও নয়- নাতিশীতোষ্ণ

অবশ্য হবে/ঘটবে যা- অবশ্যম্ভাবী

অতি দীর্ঘ নয় যা- নাতিদীর্ঘ

অতিক্রম করা যায় না যা- অনতিক্রমনীয়/অনতিক্রম্য

যা সহজে অতিক্রম করা যায় না- দুরতিক্রমনীয়/দুরতিক্রম্য

অগ্রে জন্মেছে যে- অগ্রজ

অনুতে/পশ্চাতে/পরে জন্মেছে যে- অনুজ

অরিকে দমন করে যে- অরিন্দম

অন্য উপায় নেই যার- অনন্যোপায়

অনেকের মাঝে একজন- অন্যতম

অন্য গাছের ওপর জন্মে যে গাছ- পরগাছা

আচারে নিষ্ঠা আছে যার- আচারনিষ্ঠ

আপনাকে কেন্দ্র করে চিন্তা যার- আত্মকেন্দ্রীক

আকাশে চরে যে- খেচর

আকাশে গমন করে যে- বিহগ, বিহঙ্গ

আট প্রহর যা পরা যায়- আটপৌরে

বাক্য সংকোচন বা এক কথায় প্রকাশ

আপনার রং লুকায় যে/যার প্রকৃত বর্ণ ধরা যায় না- বর্ণচোরা

আয় অনুসারে ব্যয় করে যে- মিতব্যয়ী

আপনাকে পণ্ডিত মনে করে যে- পণ্ডিতম্মন্য

আদি থেকে অন্ত পর্যন্ত- আদ্যন্ত

ইতিহাস রচনা করেন যিনি- ঐতিহাসিক

ইতিহাস বিষয়ে অভিঞ্জ যিনি- ইতিহাসবেত্তা

ইন্দ্রকে জয় করেছে যে- ইন্দ্রজিৎ

ইন্দ্রিয়কে জয় করেছে যে- জিতেন্দ্রিয়ি

ঈশ্বরের অস্তিত্বে বিশ্বাস আছে যার- আস্তিক

ঈশ্বরের অস্তিত্বে বিশ্বাস নেই যার- নাস্তিক

ঈষৎ আমিষ/আঁষ গন্ধ যার- আঁষটে

উপকার করবার ইচ্ছা- উপচিকীর্ষা

also my link…

উপকারীর উপকার স্বীকার করে যে- কৃতজ্ঞ

উপকারীর উপকার স্বীকার করে না যে- অকৃতজ্ঞ

উপকারীর অপকার করে যে- কৃতঘ্ন

একই সময়ে বর্তমান- সমসাময়িক

একই মায়ের সন্তান- সহোদর

এক থেকে আরম্ভ করে- একাদিক্রমে

একই গুরুর শিষ্য- সতীর্থ

কথায় বর্ণনা যায় না যা- অনির্বচনীয়

কোনভাবেই নিবারণ করা যায় না যা- অনিবার্য

সহজে নিবারণ করা যায় না যা/কষ্টে নিবারণ করা যায় যা- দুর্নিবার

সহজে লাভ করা যায় না যা/কষ্টে লাভ করা যায় যা- দুর্লভ

কোন কিছুতেই ভয় নেই যার- নির্ভীক, অকুতোভয়

ক্ষমার যোগ্য- ক্ষমার্হ

কউ জানতে না পারে এমনভাবে- অজ্ঞাতসারে

গোপন করার ইচ্ছা- জুগুপ্সা

চক্ষুর সম্মুখে সংঘটিত- চাক্ষুষ

চৈত্র মাসের ফসল- চৈতালি

জীবিত থেকেও যে মৃত- জীবন্মৃত

জানার ইচ্ছা- জিজ্ঞাসা

জানতে ইচ্ছুক- জিজ্ঞাসু

জ্বল জ্বল করছে যা- জাজ্বল্যমান

জয় করার ইচ্ছা- জিগীষা

জয় করতে ইচ্ছুক- জিগীষু

জানু পর্যন্ত লম্বিত- আজানুলম্বিত

তল স্পর্শ করা যায় না যার- অতলস্পর্শী

তীর ছোঁড়ে যে- তীরন্দাজ

দিনে যে একবার আহার করে- একাহারী

দীপ্তি পাচ্ছে যা- দীপ্যমান

দু’বার জন্মে যে- দ্বিজ

নষ্ট হওয়াই স্বভাব যার- নশ্বর

নদী মেখলা যে দেশের- নদীমেখলা

নৌকা দ্বারা জীবিকা নির্বাহ করে যে- নাবিক

নিজেকে যে বড়ো মনে করে- হামবড়া

নূপুরের ধ্বনি- নিক্কণ

পা থেকে মাথা পর্যন্ত- আপাদমস্তক

প্রিয় বাক্য বলে যে নারী- প্রিয়ংবদা

পূর্বজন্ম স্মরণ করে যে- জাতিস্মর

পান করার যোগ্য- পেয়

পান করার ইচ্ছা- পিপাসা

ফল পাকলে যে গাছ মরে যায়- ওষধি

বিদেশে থাকে যে- প্রবাসী

বিশ্বজনের হিতকর- বিশ্বজনীন

ব্যাকরণ জানেন যিনি- বৈয়াকরণ

বিজ্ঞানের বিষয় নিয়ে গবেষণায় রত যিনি- বৈজ্ঞানিক

বেদ-বেদান্ত জানেন যিনি- বৈদান্তিক

বয়সে সবচেয়ে বড়ো যে- জ্যেষ্ঠ

বয়সে সবচেয়ে ছোটো যে- কনিষ্ঠ

ভোজন করার ইচ্ছা- ‍বুভুক্ষা

মৃতের মত অবস্থা যার- মুমূর্ষু

মুষ্টি দিয়ে যা পরিমাপ করা যায়- মুষ্টিমেয়

মৃত্তিকা দ্বারা নির্মিত- মৃন্ময়

মর্মকে পীড়া দেয় যা- মর্মন্তুদ

মাটি ভেদ করে ওঠে যা- উদ্ভিদ

মৃত গবাদি পশু ফেলা হয় যেখানে- ভাগাড়

মন হরণ করে যা- মনোহর

মন হরণ করে যে নারী- মনোহারিণী

যা দমন করা যায় না- অদম্য

যা দমন করা কষ্টকর- দুর্দমনীয়

যা নিবারণ করা কষ্টকর- দুর্নিবার

যা পূর্বে ছিল এখন নেই- ভূতপূর্ব

যা বালকের মধ্যেই সুলভ- বালকসুলভ

যা বিনা যত্নে লাভ করা গিয়েছে- অযত্নলব্ধ

যা ঘুমিয়ে আছে- সুপ্ত

যা বার বার দুলছে- দোদুল্যমান

যা দীপ্তি পাচ্ছে- দেদীপ্যমান

যা সাধারণের মধ্যে দেখা যায় না- অনন্যসাধারণ

যা পূর্বে দেখা যায় নি- অদৃষ্টপূর্ব

যা কষ্টে জয় করা যায়- দুর্জয়

যা কষ্টে লাভ করা যায়- দুর্লভ

যা অধ্যয়ন করা হয়েছে- অধীত

যা অনেক কষ্টে অধ্যয়ন করা যায়- দুরধ্যয়

যা জলে চরে- জলচর

যা স্থলে চরে- স্থলচর

যা জলে ও স্থলে চরে- উভচর

যা বলা হয় নি- অনুক্ত

যা কখনো নষ্ট হয় না- অবিনশ্বর

যা মর্ম স্পর্শ করে- মর্মস্পর্শী

যা বলার যোগ্য নয়- অকথ্য

যার বংশ পরিচয় এবং স্বভাব কেউই জানে না- অজ্ঞাতকুলশীল

যা চিন্তা করা যায় না- অচিন্তনীয়, অচিন্ত্য

যা কোথাও উঁচু কোথাও নিচু- বন্ধুর

যা সম্পন্ন করতে বহু ব্যয় হয়- ব্যয়বহুল

যা খুব শীতল বা উষ্ণ নয়- নাতিশীতোষ্ণ

যার বিশেষ খ্যাতি আছে- বিখ্যাত

যা আঘাত পায় নি- অনাহত

যা উদিত হচ্ছে- উদীয়মান

যা ক্রমশ বর্ধিত হচ্ছে- বর্ধিষ্ণু

যা পূর্বে শোনা যায় নি- অশ্রুতপূর্ব

যা সহজে ভাঙ্গে- ভঙ্গুর

যা সহজে জীর্ণ হয়- সুপাচ্য

যা খাওয়ার যোগ্য- খাদ্য

যা চিবিয়ে/চর্বণ করে খেতে হয়- চর্ব্য

যা চুষে খেতে হয়- চোষ্য

যা লেহন করে খেতে হয়/লেহন করার যোগ্য- লেহ্য

যা পান করতে হয়/পান করার যোগ্য- পেয়

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button